গ্রীষ্মে চুলের মাস্ক

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস May 5, 2017 836
গ্রীষ্মে চুলের মাস্ক

গরমে ত্বকের যত্নে যেমন পরিবর্তন আনতে হয় তেমনি চুলের যত্নেও বিশেষ নজর দেওয়া দরকার।


ত্বক যেমন তাপে ক্ষতিগ্রস্ত হয় তেমনি চুলের জন্যেও ক্ষতিকর। রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইট অবলম্বনে চুলের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে গরম উপযোগী মাস্ক তৈরির পদ্ধতি এখানে দেওয়া হল।


দই, মধু ও ডিমের মাস্ক: দই চুলের যত্নে প্রাকৃতিক কন্ডিশনারের মতো কাজ করে। অন্যদিকে ডিম চুলে পুষ্টি জোগায় এবং গঠন মজবুত করে চুল পড়ার সমস্যা কমাতে সাহায্য করে। প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার মধু ক্ষতিগ্রস্ত চুল সুস্থ করে।


একটি ডিম ভালোভাবে ফেটে নিন যেন ফেনাভাব হয়। এর সঙ্গে ছয় টেবিল-চামচ দই এবং দুই চা-চামচ মধু মিশিয়ে মাথার ত্বক ও পুরো চুলে ভালোভাবে লাগান। বিশ মিনিট থেকে আধা ঘণ্টা অপেক্ষা করে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।


কলা ও অ্যাভোকাডো মাস্ক: গরমের কারণে শুষ্ক. রুক্ষ ও প্রাণহীন চুলের যত্নে এই মাস্ক দারুণ উপযোগী।


দুটি পাকাকলা এবং অর্ধেক পাকা-অ্যাভোকাডো ভালোভাবে ব্লেন্ড করে মিশ্রণটি চুলে ও মাথার ত্বকে আলতো হাতে মালিশ করে লাগান। এরপর ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন।


ডিম ও ক্যাস্টর অয়েল মাস্ক: একটি ডিমের কুসুম, এক টেবিল-চামচ ক্যাস্টর অয়েল, এক টেবিল-চামচ বিয়ার এবং এক টেবিল-চামচ মধু মিশিয়ে এই মাস্ক তৈরি করে নিতে হবে।


চুলের মাস্ক তৈরিতে বিয়ারের ব্যবহার শুনতে অদ্ভুত শোনালেও এতে থাকা উপাদানগুলো চুল সুন্দর করে তুলতে সাহায়ক।


মিশ্রণটি চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাগিয়ে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলার পর পানিতে অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার গুলিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এতে চুল ঝরঝরে ও প্রাণবন্ত থাকবে।