দুধে মধু মিশিয়ে পান করবেন কেন?

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস November 7, 2017 916
দুধে মধু মিশিয়ে পান করবেন কেন?

সুস্থ থাকতে প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস দুধের সঙ্গে মধু মিশিয়ে পান করুন। দুধে প্রোটিন ও ক্যালসিয়ামসহ এমন কিছু পুষ্টিগুণ রয়েছে যা হাড় মজবুত রাখে। পাশাপাশি শারীরিক সুস্থতার জন্যও দুধ অপরিহার্য। আরেকটি উপকারী উপাদান হচ্ছে মধু।


মধুতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া থেকে দূরে রাখে। দুধের সঙ্গে মধু মেশালে যেমন বাড়ে দুধের স্বাদ, তেমনি বেড়ে যায় পুষ্টিগুণও। জেনে নিন ডায়েট চার্টে মধুমিশ্রিত দুধ কেন রাখবেন।


প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস দুধের সঙ্গে ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করলে ক্লান্তি কাছে ঘেঁষতে পারে না। দিনভর কাজ করা যায় পুরোদমে। তাই এনার্জি বাড়াতে পান করতে পারেন মধুমিশ্রিত দুধ।


হজমের গণ্ডগোল দূর করতে পারে দুধ ও মধু। এই দুই উপাদানে থাকা প্রিবায়োটিকস শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যাকটেরিয়ার সাহায্যে দ্রুত খাবার হজম করে।


কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে ঘুমানোর আগে কুসুম গরম দুধের সঙ্গে মধু মিশিয়ে পান করুন।


অ্যাসিডিটি দূর করতেও মধুমিশ্রিত দুধের জুড়ি নেই।


ক্যালসিয়ামের চমৎকার উৎস দুধ। দুধে থাকা ক্যালসিয়াম হাড়ে সরবরাহ করতে সাহায্য করে মধু। ফলে দুধ ও মধু একসঙ্গে পান করলে হাড় ও দাঁত মজবুত থাকে।


ইনসোমনিয়া বা রাতে ঘুম না হওয়ার সমস্যায় ভুগলে পান করতে পারেন মধুমিশ্রিত দুধ।


শরীরের ভেতর থেকে সুরক্ষা করে এই দুই উপাদান। ফলে শরীরে বয়সের ছাপ সহজে পড়বে না যদি নিয়মিত পান করেন দুধ ও মধু ।


কফ ও গলা খুসখুসে ভাব দূর করতে কুসুম গরম দুধের সঙ্গে মধু মিশিয়ে পান করুন।


মধুতে থাকা শক্তিশালী অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান ইনফেকশনের জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়া দূর করে। এছাড়া দুধে থাকা এনজাইম পাকস্থলী সুস্থ রাখে।


তথ্য: বোল্ডস্কাই