মুহূর্তেই উধাও গর্ভবতীর বেবি বাম্প! কী রহস্য?

সাধারন অন্যরকম খবর May 24, 2017 1,443
মুহূর্তেই উধাও গর্ভবতীর বেবি বাম্প! কী রহস্য?

কোনো মহিলার গর্ভে যখন কোনো শিশু বেড়ে উঠতে থাকে তখন গর্ভস্থ শিশুর বৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়ে ওঠে মহিলার পেটও। শিশুটির বেড়ে ওঠা যেন বাইরে থেকে প্রত্যক্ষ করা যায়। কিন্তু কোনো গর্ভবতীর উদরের সেই দৃশ্যমান স্ফীতি কি মুহূর্তেই উধাও হয়ে যেতে পারে? সেই প্রশ্ন জেগেছে ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করা একটি ভিডিওর পরিপ্রেক্ষিতে।


কী রয়েছে সেই ভিডিওতে? ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি পাহাড়ের ওপরে বসে রয়েছেন এক তরুণী। স্পষ্টতই তিনি গর্ভবতী, কারণ বেবি বাম্পের দরুণ ফুলে রয়েছে তাঁর পেট।


কিন্তু পরক্ষণেই দেখা যাচ্ছে, তাঁর উদরের সেই স্ফীতি আস্তে আস্তে উধাও হয়ে গেল।


একেবারে স্বাভাবিক আকার ধারণ করল তাঁর পেট। এমনটা কী ভাবে সম্ভব, সেই প্রশ্নকে কেন্দ্র করে তোলপাড় নেট-দুনিয়া।


কিন্তু আদপে এই ভিডিওর রহস্য কী? সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন দা ব্লুম মেথড নামের ইনস্টাগ্রাম পেজটির অ্যাডমিন ব্রুক কেটস। ব্রুক ব্রেন চাইল্ড অফ প্রেগন্যান্সি নামের সংস্থার সঙ্গে জড়িত প্রেগন্যান্সি বিশেষজ্ঞ। তিনি এক অভিনব পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন, যার সাহায্যে শুধু মাত্র ব্রিথিং এক্সারসাইজ কিংবা শ্বাসপ্রশ্বাস নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে একজন গর্ভবতী তাঁর বেবি বাম্প কমিয়ে ফেলতে পারেন।


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডোর বোল্ডারে পাহাড়ের ওপর বসে এক তরুণী সেই পদ্ধতিতেই নিজের পেটকে স্বাভবিক আকারে নিয়ে এসেছিলেন। ভিডিওতে সেই তরুণীকেই দেখা গিয়েছে।


সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথাপ্রসঙ্গে ব্রুক জানিয়েছেন, তাঁর লক্ষ্য মহিলাদের গর্ভকালীন শারীরিক অসুবিধা কমানো। তিনি তাই ডায়াফ্রেমাটিক ব্রিথিং উইথ ডিপ কোর এনগেজমেন্ট নামের একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন। যে পদ্ধতির সাহায্যে বেবি বাম্পকে মুহূর্তে কমিয়ে ফেলা যায়।


ব্রুকের বক্তব্য, পেট ফুলে থাকার কারণে নানা রকম শারীরিক অস্বাচ্ছন্দ্য সহ্য করতে হয় গর্ভবতী মহিলাদের। সেই কারণেই ব্রিথিং এক্সারসাইজের মাধ্যমে পেটের স্ফীতি কমিয়ে ফেলার পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি গর্ভবতীদের। ব্রুকের দাবি, এই কৌশলে শুধু যে গর্ভবতীদের শরীরের অসুবিধা কমে তা-ই নয়, পাশাপাশি তাঁদের স্বাস্থ্যেরও উন্নতি হয়।