গর্ভাবস্থায় যেসব খাওয়া নিষেধ

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস February 17, 2017 896
গর্ভাবস্থায় যেসব খাওয়া নিষেধ

গর্ভবতী নারীর খাবারের ক্ষেত্রে কিছুটা সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। যে খাবারগুলো খেলে গর্ভপাত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে সেসব খাবার এড়িয়েই চলা উচিত। এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন কিছু খাবারের কথা।


১. কাঁচা ডিম

গর্ভবতী নারীর কখনোই ভালোভাবে ভাজা বা রান্না ছাড়া ডিম খাওয়া উচিত নয়। এক্ষেত্রে এমন কোনো খাবারও খাওয়া উচিত নয় যেখানে ডিম ভালোভাবে রান্না ছাড়াই দেওয়া হয়। এগুলো স্যালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ায় সংক্রমিত হতে পারে, যা গর্ভপাতও ঘটাতে পারে।


২. কাঁচা দুধ

গর্ভবতী নারীর কাঁচা কিংবা পাস্তরিত নয় এমন দুধ পান করা যাবে না। কারণ এগুলো ফুড পয়জনিংয়ের কারণ হতে পারে। এতে গর্ভপাতসহ আরও বিপদের কারণ হতে পারে।


৩. শজনে

শজনে খেতে অনেকেই পছন্দ করেন। কিন্তু গর্ভবতী নারীর এ সবজিটি খাওয়া মোটেই উচিত নয়। কারণ সজনেতে রয়েছে আলফা-সিটোস্টেরল। এটি গর্ভপাতের কারণ হতে পারে।


৪. কলিজা

কলিজা স্বাভাবিক অবস্থায় পুষ্টিকর হলেও তা যদি অসুস্থ প্রাণীর হয় তাহলে তাতে প্রচুর ক্ষতিকর পদার্থ থাকতে পারে। তাই গর্ভবতী নারীর কলিজা এড়িয়ে চলা উচিত।


৫. ঘৃতকুমারী

ঘৃতকুমারী গাছের নির্যাস থেকে তৈরি কোনো খাবার গর্ভবতী নারীর খাওয়া বা পান করা উচিত নয়। বিশেষত গর্ভাবস্থার প্রথম তিন মাসে এটি পেলভিক হেমারেজের কারণ হতে পারে।


৬. অঙ্কুরিত বা সবুজ আলু

গর্ভাবস্থায় স্বাভাবিক আলু খেতে কোনো সমস্যা নেই। তবে আলুটি যদি হয় অঙ্কুরিত তাহলে তাতে বহু ক্ষতিকর রাসায়নিক থাকতে পারে। আর এটি গর্ভবতী নারী ও তার অনাগত শিশুর জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।


৭. পেঁপে

পেঁপে গর্ভবতী নারীর গর্ভপাতের কারণ হতে পারে। বিশেষত কাঁচা পেপে একেবারেই এড়িয়ে চলতে হবে গর্ভাবস্থায়।


৮. আনারস

আনারসে রয়েছে ব্রোমেলাইন নামে একটি উপাদান। এটি ইউটেরাইন মাংসপেশিকে শীথিল করে। এতে গর্ভপাত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। সন্তান জন্মদানের সময় হলে অবশ্য আনারসের জুস পান করলে সন্তান প্রসব সহজ হয়।